ব্রেকিং নিউজ

x


সিজারিয়ান অপারেশনের মাধ্যমে চালু হলো হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অপারেশন থিয়েটার

রবিবার, ০৭ আগস্ট ২০২২ | ৮:৩০ পূর্বাহ্ণ

সিজারিয়ান অপারেশনের মাধ্যমে চালু হলো হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অপারেশন থিয়েটার

দীর্ঘ ৬ বছর বন্ধ থাকার পর পূনরায় চালু করা হয়েছে
সিজারিয়ান অপারেশনের মাধ্যমে চালু হলো হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অপারেশন থিয়েটার

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দীর্ঘ বছর বন্ধ থাকার পর ফের চালু হলো অপারেশন থিয়েটার। সরকারি হাসপাতালে অপারেশন থিয়েটার দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর পুনরায় চালু হওয়ায় এই উপজেলার প্রায় ৪ লক্ষাধিক মানুষের ভোগান্তি অনেকটা লাঘব হবে। একইসঙ্গে বিনামূল্যে যাবতীয় সরকারি সুযোগ-সুবিধা পাবেন এলাকাবাসী।

বৃহস্পতিবার বিকাল ৩টায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অপারেশন থিয়েটারের সিজারিয়ান অপারেশনের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার গোলাম মাওলা নাঈম।

এ সময় হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মোহাম্মদ জামাল উদ্দিন, মেডিকেল অফিসার ডাক্তার নাজমুল করিম, ডাক্তার মোহাম্মদ ওমর ফারুক, সার্জারি কনসালটেন্ট ডাক্তার হারুন উর রশীদ, ডাক্তার মাহাদী, ডাক্তার তামিম, সিনিয়র স্টাফ নার্স আয়েশা আক্তার উপস্থিত ছিলেন।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, এক সময় নিয়মতভাবে গাইনোকোলজিক্যাল অপারেশন চালু থাকলেও দক্ষ ও বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের অভাবে এ হাসপাতালের অপারেশন থিয়েটারটি বন্ধ রাখা হয়। এ ছাড়াও অপারেশন থিয়েটারের এনেসথেশিয়া মেশিনটি নষ্ট হওয়ায় যা রিপেয়ার করতে সময় লাগার কারনে একটি নতুন এনেসথেশিয়া মেশিন কিনে নেয়া হয়। যার ফলে উপজেলার বৃহৎ জনগোষ্ঠী দীর্ঘদিন অপারেশন বা সিজারিয়ান অপারেশন স্বাস্থ্য সেবা থেকে বঞ্চিত ছিলো। সিজারিয়ান অপারেশনটি চালু হওয়ায় হাসপাতালে আগত চিকিৎসা সেবা নিতে আশা রোগীরা কর্মরত সকল ডাক্তারদের ধন্যবাদ জানান।

বৃহস্পতিবার ৬নং বড়কুল ইউনিয়নের রায়চোঁ গ্রামের সুজন সাহার স্ত্রী রাখী সাহা দ্বিতীয় সন্তান সিজারিয়ান অপারেশনের মাধ্যমে তাদের ২য় সন্তানের জন্ম হয়।

হাসপাতাল সূত্রে আরো জানা যায়, হাসপাতালকে ৩১ শয্যা থেকে ৫০ শয্যায় উন্নীত করণ করা হলেও সে অনুযায়ী লোকবল ও অবকাঠামো সুযোগ সুবিধা তেমন বাড়ানি। প্রয়োজন অনুযায়ী চিকিৎসাসেবা না পেয়ে রোগীদের প্রাইভেট হাসপাতাল কিংবা জেলা সদর হাসপাতালগুলোতে দৌড়াচ্ছেন।

সম্প্রতি উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার গোলাম মাওলা নাঈম ও আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মো. জামাল উদ্দিন যোগদানের পর হাসপাতালের সমস্যা সম্পর্কে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেন। এছাড়াও আধুনিক যন্ত্রপাতিসহ, শিশুদের জন্য আইএমসিআই র্কনার, এনসিডি কর্নার, মায়েদের জন্য এএনসি কর্নার, জরায়ু মুখের ক্যানসার পরীক্ষার জন্য চালু হয়েছে ভায়া কর্নার। নতুন সার্জন ও অ্যানেসথেসিস্ট যোগদান করায় উন্মুক্ত হয় অপারেশন থিয়েটার।

বর্তমানে সরকারি হাসপাতালের অপারেশন থিয়েটারটি পুনরায় চালু হওয়ায় উপজেলার মানুষ উপকৃত হবে সব চেয়ে বেশি।
হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মো. জামাল উদ্দিন বলেন, বর্তমান সরকার মানুষের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে বদ্ধপরিকর। হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দীর্ঘদিন পর পুনরায় অপারেশন থিয়েটার চালু হওয়ায় এসব এলাকার গরীব ও সাধারণ মানুষ বিনামূল্যে বড় ধররের অপারেশন ছাড়া নরমাল ডেলিভারিসহ সিজারিয়ান অপারেশন ও সকল ধরনের অপারেশন করা হবে।

হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার গোলাম মাওলা নাঈম বলেন, অপারেশন থিয়েটার চালু হওয়ায় উপজেলাবাসী বিশেষ করে সাধারণ ও নিম্ন আয়ের মানুষ বিনা মূল্যে হাতের নাগালেই সার্জিক্যাল সেবা পাবে। হাসপাতালের আউটডোর স্বাস্থ্য সেবা প্রদানের পাশাপাশি অপাশেন থিয়েটারের কার্যক্রম চলমান থাকবে। গাইনোকোলজিল্যাল (সন্তান প্রসব) অপাশেন করার পাশাপাশি অর্থপেডিক বিভাগের ছোটখাট অপারেশনও করা হবে।

পরবর্তীতে আরো জনবল পেলে বড় ধরনের অপারেশন ছাড়া সকল সিজারিয়ান অপারেশনসহ সকল অপারেশন করা হবে। এ জন্য হাজীগঞ্জ শাহরাস্তির সাংসদ মেজর অব. রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম এমপি ধন্যবাদ জানান। তিনার সহযোগীতায় এ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সকে এতটুকি এগিয়ে আনা সম্ভব হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ৮:৩০ পূর্বাহ্ণ | রবিবার, ০৭ আগস্ট ২০২২

protidin-somoy.com |

Development by: webnewsdesign.com