ব্রেকিং নিউজ

x


প্রেসিডেন্ট পুত্রের গোলে আশা জাগিয়ে পয়েন্ট হারাল যুক্তরাষ্ট্র

মঙ্গলবার, ২২ নভেম্বর ২০২২ | ৭:০০ পূর্বাহ্ণ

প্রেসিডেন্ট পুত্রের গোলে আশা জাগিয়ে পয়েন্ট হারাল যুক্তরাষ্ট্র

 

বাবা ছিলেন নামজাদা ফুটবলার। সাবেক ফিফা বর্ষসেরা ও ব্যালন ডি অর জয়ী। যার আরও একটি বিখ্যাত পরিচয় আছে, তিনি লাইবেরিয়ার প্রেসিডেন্ট। হ্যাঁ, জর্জ উইয়াহর কথাই বলা হচ্ছে। কাতার বিশ্বকাপে যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাচে আলোচনায় সিনিয়র উইয়াহও। পুত্র টিমোথি উইয়াহ যে এদিন যুক্তরাষ্ট্রের জয়ের নায়ক হতে চলেছিলেন। জেতা হয়নি, তবে ঠিকই নায়ক বনে গেছেন। তার গোলেই গ্যারেথ বেলের ওয়েলসের বিপক্ষে দুর্দান্ত খেলে ড্র করেছে মার্কিনিরা।

সোমবার রাতে আহমাদ বিন আলী স্টেডিয়ামে গ্রুপ বি-এর ম্যাচে যুক্তরাষ্ট্রের শুরুর একাদশেই ছিলেন ২২ বর্ষী উইঙ্গার। ম্যাচ ড্র হয়েছে ১-১ গোলে। ওয়েলসের জালে প্রথম ও দলের একমাত্র পেরেকটি ঠোকেন তিনি। ম্যাচের ৩৬ মিনিটে পুলিসিচের বাড়ানো বলে দুর্দান্ত ফিনিশিংয়ে লিড আনেন টিমোথি।

একবিংশ শতাব্দীতে জন্ম নেয়া যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম কোনো খেলোয়াড় হিসেবে বিশ্বকাপে গোলের দেখা পেলেন টিমোথি। ২০১৮-১৯ সময়ে ফরাসি জায়ান্ট পিএসজিতে খেলে পাড়ি জমিয়েছেন লিগ ওয়ানেরই আরেক ক্লাব লিলে। বছর পাঁচেক হতে চলল আমেরিকা দলেও, দুই ডজনের বেশি ম্যাচে নেমেছেন। ২৫ ম্যাচে ৪ গোল হল।

অন্যদিকে, সিনিয়র উইয়াহ ১৯৯৬ সালে ফিফা বর্ষসেরা ও ১৯৯৫ সালে ব্যালন ডি অর জিতেছিলেন। ২০১৮ থেকে লাইবেরিয়ার প্রেডিসেন্টের পদ সামলাচ্ছেন ৫৬ বর্ষী তারকা। ১৮ বছরের ফুটবল ক্যারিয়ারের ইতি টেনেছেন ২০১৩ সালে, ছিলেন ফরোয়ার্ড। লাইবেরিয়া জার্সিতে ৭৫ ম্যাচ খেলেছেন। ম্যানসিটি, পিএসজি, চেলসি, এসি মিলান কোথায় খেলেননি।

কাতার মিশনে এদিন দুদলই নেমেছিল নিজেদের প্রথম ম্যাচে। মার্কিনিদের বড় প্রত্যাশা ছিল তারকা ফরোয়ার্ড ও অধিনায়ক ক্রিস্টিয়ান পুলিসিচের কাছে। আস্থার প্রতিদান দারুণভাবে দিয়েছেন তিনি। অন্যদিকে গ্যারেথ বেলের রোমাঞ্চ ছিল ৬৪ বল পর দেশকে বিশ্বকাপে আনার। প্রথম মিশনে তাকে জয়হীন থাকতে হল আনসাং হিরো হয়ে ওঠা টিমোথির কাছে।

ম্যাচজুড়ে ওয়েলসের উপর ছড়ি ঘুরিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। একের পর এক আক্রমণ শানিয়েছে প্রথমার্ধে। মধ্যবিরতির পর ফিরেও মার্কিনিদের তোপের মুখে ছিল ওয়েলস। দ্বিতীয়ার্ধে অবশ্য বেলরাও ছন্দে ফেরে। তবে গোলের দেখা মিলছিল না।

এমন সময় ভুল করে বসে যুক্তরাষ্ট্র। আগুয়ান বেলকে পিছন থেকে ট্যাকল করতে যেয়ে ফাউল করে বসে বক্সের মধ্যে। ম্যাচের তখন ৮১ মিনিট। রেফারি পেনাল্টির বাঁশি বাজিয়ে দেন। স্পট কিকে গোল আনতে ভুল করেননি ওয়েলস অধিনায়ক। ফেরে সমতা।

সমতা ফিরিয়ে প্রতিপক্ষ রক্ষণে চাপ প্রয়োগ বাড়িয়ে দেয় ওয়েলস। একের পর এক ভীতি সৃষ্টি আক্রমণ শানিয়ে এগোয়। যদিও আরেকটি গোল তাদের পাওয়া হয়নি। আর ৮১ মিনিট এগিয়ে থাকা কোচ গ্রেগ বেরহাল্টারের মার্কিন শিষ্যদের পাওয়া হয়নি পূর্ণ পয়েন্ট।

তবে ফিফা র‍্যাঙ্কিংয়ে ১৯তম স্থানে থাকা ওয়েলসের বিপক্ষে তিন ধাপ এগিয়ে ১৬তে থাকা যুক্তরাষ্ট্র সামর্থ্য দেখিয়েছে ভালোই। ওয়েলসের বিপক্ষে অপরাজিতই থাকল তারা। আগের দুবারের দেখায় একবার জিতেছে যুক্তরাষ্ট্র, অন্য ম্যাচটি হয়েছিল ড্র। সেই যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে বিশ্বমঞ্চে বেলের দলও আনল আরেকটি ড্র।

বাংলাদেশ সময়: ৭:০০ পূর্বাহ্ণ | মঙ্গলবার, ২২ নভেম্বর ২০২২

protidin-somoy.com |

Development by: webnewsdesign.com