ব্রেকিং নিউজ

x


এখন ভয় লাগে না, চাপাবাজি করতেই হয় : মাহি 

বুধবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ৭:১৮ পূর্বাহ্ণ

এখন ভয় লাগে না, চাপাবাজি করতেই হয় : মাহি 

 

বিয়ের ঠিক এক বছরের মাথায় অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার খবর জানিয়েছেন ঢাকাই সিনেমার সফল চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। আপাতত জীবনের সর্বশ্রেষ্ঠ সময় পার করছেন তিনি। পরিবারের আদর-যত্নে দিন কাটছে তার।

এদিকে মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে মাহি অভিনীত সিনেমা ‘যাও পাখি বলো তারে’। সিনেমাটি আগামী ৭ অক্টোবর দেশজুড়ে প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাবে। মুক্তি উপলক্ষে শনিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) রাতে এফডিসিতে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সেখানে স্বামী রাকিব সরকারকে নিয়ে হাজির হয়েছিলেন মাহি। সংবাদ সম্মেলন শেষে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হন নায়িকা।

ওই সময় মাহিয়া মাহি বলেন, আমার কেন জানি প্রথম প্রথম এতো ক্যামেরা দেখে ভয় লাগতো। আমার কাছে মনে হতো কি বলব, কীভাবে কথা বলব। কিন্তু এতো বছর পরে এসে সবাইকে না এতো আপন মনে হয়! প্রায়ই বলি হ্যাঁ ভাইয়া, এটা করছি-ওটা করছি। সবাইকে ফ্যামিলি মনে হয়। এখন আর কথা বলতে ভয় লাগে না। যা ইচ্ছা সেটা বলে দেব, যে রকম ইচ্ছা নিউজ করে ফেলবে। সবার আগে বলি যে, ‘যাও পাখি বলো তারে’ এমন একটা কাজ; অনেক সিনেমা নিয়ে তো চাপাবাজি করতে হয় (হ্যাঁ খুব ভালো সিনেমা)। আপনারা সবাই সিনেমা দেখতে আসবেন। কিন্তু কিছু কাজ থাকে যেটা সম্পর্কে অনেক কিছু বলতে চাই, আসলে বলা হয় না বা বলতে পারি না। ফিলিংসটা এক্সপ্রেস করতে পারি না।

তিনি আরও বলেন, যাও পাখি বলো তারে’ ছবিতে যখন কাজ করতে গেছি; প্রত্যেকটা সিকোয়েন্সে আর্টিস্টের যখন কাজ দেখেছি (অপু ভাইয়া, আদর, শিপন ভাইয়া) নিজে থেকেই গেছি সবার অ্যাক্টিং দেখব বলে। এবং দেখতে যেয়ে প্রত্যেকটা সিকোয়েন্সে আমার কাঁদতে হয়েছে। আমার কাছে মনে হয়নি যে, তাদের থেকে ভালো করতে হবে। আমার কাছে মনে হয়েছে ভেতর থেকে কাজ অটো চলে আসবে। এখানে আসলে আমি অভিনয় করিনি, ক্যারেক্টারের ভেতরে ঢুকে গিয়েছিলাম। চেষ্টা করেছি ঢোকার জন্য। কতটুকু ঢুকতে পেরেছি জানি না, কিন্তু আমার মনে পড়ে শুটিং করতে যেয়ে মজা লেগেছে।

সিনেমা শুটিংয়ের অভিজ্ঞতা নিয়ে তিনি বলেন, প্যাকআপ শেষে হোটেলে বা রুমে চলে আসি। কিন্তু এই শুটিংয়ে সবাই মিলে গাড়িতে রিসেন্ট যে গানটা ছিল সেটা ছেড়ে চিল্লাচিল্লি করতে করতে আমরা যে যার হোটেলে যেতাম। এত মজা করে আমি কখনও শুটিং করিনি এই দশ বছরের ক্যারিয়ারে। এই ১০ বছরে আমি অনেক হিট সিনেমায় কাজ করেছি কিন্তু ‘যাও পাখি বলো তারে’ আমার সবচেয়ে বেস্ট সিনেমা। এটা আমি প্রমিজ করে বলছি। আমি জানি না দর্শকরা কি বলবেন, তারা তো পরে দেখবেন। সাংবাদিকদের কাছে অনুরোধ, সবাই এই সিনেমাটা দেখবেন। দেখার পরে লিখবেন যে, ছবিটা আপনাদের কেমন লেগেছে। সেটা দেখে যদি কোনো দর্শক যায় যাবে, কিন্তু আমার মনে হয় আপনারা সবাই আগে দেখবেন। এতো ভালো সিনেমা যে, যারা ভালোবাসতে ভুলে গেছে তারা নতুন করে ভালোবাসতে শিখবে। এই সিনেমায় মজনু নামে একটি ক্যারেক্টার আছে। সিনেমাটি করতে গিয়ে আমি একটা ঘোরের মধ্যে ছিলাম অনেকদিন। আচ্ছা আমার জীবনে কেন একটা মজনু নেই, এ রকম একটা মজনু থাকা উচিত। প্রত্যেকের জীবনে একটা মজনু আছে। ছেলেদের জীবনে মেয়ে মজনু আর মেয়েদের জীবনে একটা ছেলে মজনু। কিন্তু কেউ জানে না। এই ছবিটা আমি সবাইকে দেখার রিকোয়েস্ট করব। আমরা আসলে ভালোবাসা সম্পর্কে সবাই জানি না। এই ছবিটা দেখলে আমরা আরও একবার ফিল করতে পারব। সবাই ভালো থাকবেন, আমাদের জন্য দোয়া করবেন, ‘যাও পাখি বল তারে’র সঙ্গে থাকবেন।

সিনেমার প্রচারণায় সাংবাদিকদের ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, যেভাবেই হোক এই ছবিটার প্রচারণা ফেসবুকে এমনভাবে করবেন যাতে সবার কাছে যেন এই নিউজটা যায় যে, ‘যাও পাখি বলো তারে’ একটা সিনেমা এবং আমরা এটা দেখতে যাব। ১০ বছর ধরে আপনারা আমাকে অনেক সাপোর্ট করেছেন, আরও একবার আপনাদের কাছে সাপোর্ট চাই। কারণ, বেশ কিছুদিন আমি সিনেমা থেকে দূরে থাকব। এই ‘যাও পাখি বলো তারে’ যেন আমার জন্য অনেক ভালো একটা অভিজ্ঞতা হয়।

বাংলাদেশ সময়: ৭:১৮ পূর্বাহ্ণ | বুধবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২২

protidin-somoy.com |

Development by: webnewsdesign.com